পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্যকালীন কোর্স বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে মঞ্জুরি কমিশন

0
35

দেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সান্ধ্যকালীন কোর্স বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। গতকাল বুধবার পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উপাচার্যদের উদ্দেশ্যে এক বিবৃতিতে এই নির্দেশনা দেয়া হয়।

এতে বলা হয়, সান্ধ্যকালীন কোর্স পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশিষ্ট্য ও ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে বলে এই কোর্স বন্ধ করা উচিত।

গত সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আব্দুল হামিদ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্য কোর্সের কঠোর সমালোচনা করেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, সান্ধ্যকালীন কোর্স বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশের ক্ষতি করছে।

তিনি এ বিষয়ের কড়া সমালোচনা করে বলেছেন, এক শ্রেণির শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয়কে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত করছেন যা গোটা শিক্ষার পরিবেশের ক্ষতি করছে।

তিনি বলেন, “বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এখন ডিপার্টমেন্ট কোর্স, ইভনিং কোর্স, ডিপ্লোমা কোর্স ও ইনস্টিটিউটের ছড়াছড়ি। এসব ডিগ্রি অর্জন করে শিক্ষার্থীরা কতটুকু লাভবান হচ্ছে এ ব্যাপারে প্রশ্ন থাকলেও একশ্রেণীর শিক্ষক ঠিকই লাভবান হচ্ছেন। তারা নিয়মিত নগদ সুবিধা পাচ্ছেন এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করছেন।”

রাষ্ট্রপতির এমন সমালোচনার দুদিন পরেই এই পদক্ষেপ নিলো বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন।

বিবৃতিতে উদ্বেগ জানিয়ে বলা হয়, দেশের কোনো কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কমিশনের অনুমোদন ছাড়াই নতুন বিভাগ, প্রোগ্রাম ও ইনস্টিটিউট খুলে শিক্ষার্থী ভর্তি করে শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া শিক্ষক-কর্মকর্তা নিয়োগের ক্ষেত্রেও শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল করা হচ্ছে।

সান্ধ্য কোর্স বন্ধের নির্দেশনা ছাড়াও আরো কিছু বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার অনুরোধ করা হয় ইউজিসির নির্দেশনায়। বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন অনুষদ, বিভাগ, প্রোগ্রাম বা ইনস্টিটিউট খোলার বিষয়ে কমিশনের অনুমোদন নেয়ারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ ছাড়াও বলা হয়, অনুমোদন ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন পদ সৃষ্টি বা বাতিল করা যাবে না এবং সরকারি আর্থিক বিধিমালা অনুযায়ী আর্থিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ক্যাম্পাসে যৌন হয়রানি, র‍্যাগিং, সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরি, নির্দিষ্ট সময়ে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু, পরীক্ষা অনুষ্ঠান ও ফলাফল প্রকাশের বিষয়েও নির্দেশনা দেয়া হয় বিবৃতিতে।

LEAVE A REPLY