নতুন বাজেটে যার দাম কমতে পারে, বাড়তে পারে

0
60

আজ ১১ই জুন বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায় জাতীয় সংসদে নতুন অর্থবছরের বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।প্রথমবারের মতো বিশাল অংকের বাজেটে ঘাটতি, থাকলেও দাম কমবে স্বর্ণ, কৃষি ট্রাকটারের টায়্যার, ট্রিউব, গিয়ার বক্স, ট্রেক্সটাইল যন্ত্রাংশ। খাদ্যদ্রব্যের মধ্যে রয়েছে চিনি, রসুন, পোল্টি খাদ্য।

কমতে পারে এলপিজি সিলিন্ডারের দাম, স্যানিটারি ন্যাপকিন ও ডায়াপারের কাঁচামাল আমদানিতে রেয়াতি সুবিধা বাড়ানো হবে। ইস্পাত শিল্পের রিফ্রাক্টরি সিমেন্টের ওপর শুল্ক কমানো হবে।  রেফ্রিজারেটর ও এসির কাঁচামাল আমদানিতে বিদ্যমান রেয়াতি সুবিধা বাড়ানো হচ্ছে।

দাম কমছে চিকিৎসা সামগ্রী মাস্ক, গ্লাবস, হ্যান্ডস্যানিটাইজার, পিপিই, ভেন্টিলেটর।

দাম বাড়তে পারে যে জিনিসের, মোটরসাইকেল, সিগারেট, মোবাইলে কথা বলার খরচ, বাইসাইকেল, ইন্টারনেট খরচ, বডি স্প্রে,  আইসক্রিম। এছাড়া শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত লঞ্চের টিকিট খরচ বাড়বে। আগে ৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর ছিল, নতুন অর্থবছরে তা বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।পেঁয়াজ আমদানিতে কিছুটা শুল্ক আরোপ হতে পারে।

চার্টার্ড বিমান ও হেলিকপ্টার ভাড়ার ওপর সম্পূরক শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রসাধনসামগ্রীর ওপর সম্পূরক শুল্ক ৫ থেকে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ব্যক্তিগত গাড়ির রেজিস্ট্রেশনসহ বিআরটিএ প্রদত্ত অন্যান্য সার্ভিস ফির ওপর সম্পূরক শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। সিরামিকের সিঙ্ক বেসিনের ওপর ১০ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে।রেডিও, মোটর সাইকেলের টায়ার ও গাড়ির ১৬ ইঞ্চি সাইজের টায়ারসহ সব ধরনের টিউবের আমদানি শুল্ক বাড়ানো হয়েছে।

আমদানি শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব হয়েছে খাদ্যের মধ্যে দাম বাড়তে পারে  গুড়া দুধ, লবণ, আমদানি সবজি ও মাছ, ফল, মধু, চকলেট, আমদানিকৃত দুধ, কসমেটিকস।আইসক্রিমের উপর ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী, ফলে বাড়তে পারে এর দামও। ভ্যাট অব্যাহতির প্রস্তাব করায় ১৫০ টাকা পর্যন্ত মূল্যমানের পাউরুটি, বিস্কুট ও কেকের দাম কমতে পারে। স্থানীয় পর্যায়ে উৎপাদিত কৃষি যন্ত্রপাতিতেও ভ্যাট অব্যাহতি দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

LEAVE A REPLY