একজন সজীব ওয়াজেদ জয় ও ডিজিটাল বাংলার স্বপ্নপুরন

0
18

আজ ২৭শে জুলাই ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের শুভ জন্মদিন। ১৯৭১ সালের এই দিনে (২৭ জুলাই) ঢাকায় পরমাণুবিজ্ঞানী এম এ ওয়াজেদ মিয়া ও শেখ হাসিনা দম্পতির ঘর আলো করে পৃথিবীতে আসেন তিনি। যে বছর মুজীব জন্মশত বার্ষিকি পালিত হচ্ছে সে বছরেই ৫০ বছরে পা রাখলেন সজীব ওয়াজেদ জয়।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫০তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতা, কর্মী, সমর্থক সহ লাখো ভক্ত, অনুরাগী। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের নেপথ্য নায়ক ও নিঃশব্দে ঘটে যাওয়া আইসিটি বিপ্লবের স্থপতি সজীব ওয়াজেদ জয়। তথ্য প্রযুক্তি খাতে দীর্ঘদিন পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ কে এগিয়ে নিতে তার প্রস্তাবে ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে দলীয় ইশতেহারে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ গড়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আজ এ খাতে বাংলাদেশ এগিয়েছে কল্পনাতীত অবস্থানে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরই এ খাতকে গুরুত্ব দিয়েছিলেন এর সীমাহীন গুরুরত্ব অনুভব করে, যার সুফল জাতি আজ প্রান ভরে উপভোগ করছে।

আর্থিক লেনদেন থেকে শুরু করে, ঘরে বসে বিল প্রদান,জরুরী সেবা সহ বড় বড় টেন্ডার কিংবা সরকারি অনেক কর্মকান্ড এখন ডিজিটাল করা হয়েছ্‌, তথ্যের আদান প্রদান, চিকিতসা, শিক্ষা, ভূমি ব্যবস্থাপনা, সামাজিক যোগাযোগ সবই চলছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে যা কমিয়ে এনেছে শ্রম, অর্থ ও সময়। দ্রুত তম সময়ে করে ফেলা যাচ্ছে অনেক কাজ যা মানুষের কাজের মধ্যে এনেছে স্বস্তি ও আরাম। বর্তমান সময়ে প্রযুক্তিনির্ভরতার কোন বিকল্প নেই আর এই বিপ্লব ঘটেছে বর্তমান সরকারের স্বদিচ্ছা ও দুরদর্শিতার ফলে। এ কাজে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় নিজেকে উজাড় করে দিয়ে আমাদের স্বপ্নকে বাস্তবে রুপ দিয়রছেন।আজ বাঙ্গালী গর্বের সাথে ভুমি থেকে মহাকাশে বিচরন করছে নিজস্ব স্বত্তায়।

১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের কালরাত্রে বাবা মায়ের সাথে জার্মানীতে থাকায় বেঁচে যাওয়া এই মানুষটি আজ বাঙ্গালীকে টেনে তুলেছেন এক অনন্য উচ্চতায়-শুভ জন্ম দিনে শুভেচ্ছা, নিরাপদ ও বলিষ্ঠ আগামীর প্রত্যাশায় আমাদের প্রতীক্ষা।

LEAVE A REPLY