মানুষের মুক্তির জন্য শ্রীলঙ্কা সবসময় বাংলাদেশের পাশে পাশেই হেটেছে: মাহিন্দা রাজাপাকসে

0
7
বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকি ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্ত্রী ১০দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের ৩য় দিনে যোগ দিতে আজ ঢাকায় আসেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহেন্দ রাজা পাকসে। শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী বলেন সিংহলিদের পূর্ব-পুরুষরা বাংলা থেকেই দ্বীপ দেশটিতে অভিবাসন নিয়েছিলো, তাই দুই দেশের সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি এখানে উপস্থিত হয়ে এই ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পেরে সম্মানিত বোধ করছি। আমাকে আমন্ত্রণ জানানোয় ধন্যবাদ জানাই। কোভিড-১৯ এর কারণে তৈরি বহু চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে আমি শ্রীলঙ্কানদের পক্ষ থেকে একতা প্রকাশ করতে এসেছি।’
রাজাপাকসা বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রায়ই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতা থেকে কোট করতেন। বঙ্গবন্ধুর উদ্দেশ্যে সেই রবীন্দ্রনাথের কবিতা থেকেই রাজাপাকসা বলেন, চিত্ত যেথা ভয়শূন্য, উচ্চ যেথা শির, জ্ঞান যেথা মুক্ত, যেথা গৃহের প্রাচীর আপন প্রাঙ্গণতলে দিবসশর্বরী বসুধারে রাখে নাই খণ্ড ক্ষুদ্র করি।

শ্রীলঙ্কা সেই প্রথম দেশগুলোর একটি যারা বাংলাদেশের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছিলো। বঙ্গবন্ধু ছিলেন আদর্শের মানুষ, তিনি বাংলাদেশের মানুষের জন্য পুরো জীবন উৎসর্গ করেছিলেন। তিনি তার দেখা স্বপ্ন পূরণ দেখে যেতে পারেননি। আমি বুঝতে পারি ১৫ আগস্ট এই জাতি কি হারিয়েছিলো।

স্বাধীনতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্মকে মনে রাখতে হবে, তাদের পূর্ব পুরুষেরা স্বাধীনতার জন্য কতোটা ত্যাগ করে চলেছে। মানুষের মুক্তির জন্য শ্রীলঙ্কা সবসময় বাংলাদেশের পাশে পাশেই হেটেছে। ভবিষ্যতেও পাশে থাকবে। উর্বর ভূমি, ভৌগলিক অবস্থান, সামুদ্রিক সম্পদ দুই দেশকে সবসময়েই কাছাকাছি রেখেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বঙ্গোপসাগরকে নেওয়া উদ্যোগ শ্রীলঙ্কাকে সবসময় উৎসাহিত করে।

LEAVE A REPLY