আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে ডিএমপি

0
56

আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে পুর্ব ঘোষিত সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। আগামীকাল ২৮অক্টবর শনিবার আওয়ামী লীগ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে এবং বিএনপি নয়াপল্টনে তাদের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করতে পারবে। আজ শুক্রবার রাতে ডিএমপির পক্ষ থেকে শর্তসাপেক্ষে সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়।

সরকার পতনের এক দফা দাবিতে ঘোষিত শনিবার মহাসমাবেশের আগেই দলটির নেতাকর্মীরা নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে হাজির হয়েছেন। সরকারের পদত্যাগের দাবিতে বিএনপি নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ করার ঘোষণাটি দিয়েছিল ১৮ অক্টোবর। নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে আজ দুপুরে পুলিশ সদস্যদের ক্লোজড সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা লাগাতে দেখা যায়।

এরপর আওয়ামী লীগও একই দিন ঘোষণা দেয় যে তারা ২৮ অক্টোবর বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ করবে।পুলিশকে দেওয়া চিঠিতে আওয়ামী লীগ জানায়, তারা বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ ফটকেই সমাবেশ করবে। চিঠিতে বলা হয়, ‘২৮ অক্টোবর (শনিবার) শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে আয়োজনের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি (মঞ্চনির্মাণ ও প্রচার-প্রচারণার কার্যক্রম) ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এমতাবস্থায় স্বল্প সময়ের মধ্যে অন্য কোনো ভেন্যুতে নতুনভাবে সমাবেশের প্রস্তুতি গ্রহণ করা দুরূহ ব্যাপার।’

২৬ অক্টোবর ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার (অপারেশনস) বিপ্লব কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেছিলেন, কোনো রাজনৈতিক দলকে রাস্তায় কোনো সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না। মাঠ কিংবা খোলা স্থান নির্বাচন করে, সেটি উল্লেখ করে আবেদন করতে হবে।

দুই দলের সমাবেশের অনুমতির বিষয়ে ডিএমপির শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা আজ বিকেল চারটার দিকে বৈঠকে বসেন। বৈঠকে দুই দলকে শর্তসাপেক্ষে তাদের পছন্দের জায়গায় সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এদিকে একই দিনে সমাবেশ করতে চাই্লেও ওনুমতি পায়নি জামায়াত। রাজধানীর শাপলা চত্বরে মহাসমাবেশ করার অনুমতি চেয়েছিল জামায়াতে ইসলামী। মহাসমাবেশের অনুমতি চেয়ে জামায়াতের পক্ষ থেকে ডিএমপি কমিশনারকে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। তবে আগেই ডিএমপি জানিয়েছিল জামায়াতকে অনুমতি দেওয়া হবে না। আজও ডিএমপির সভা শেষে সাংবাদিকদের জানানো হয়, জামায়াতকে মহাসমাবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না।

LEAVE A REPLY