নতুন আইনে চালকদের জামিনের ব্যবস্থা রাখার দাবি শাজাহান খানের

0
18
সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান । ফাইল ছবি

সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ শ্রমিক ফেডারেশনের কার্যকরী সভাপতি শাজাহান খান বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনায় গাড়িচালকদের বিচারে শাস্তি যা হওয়ার হবে কিন্তু তার যেন জামিনের ব্যবস্থা রাখা হয়।

গতকাল রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে টাস্কফোর্স কমিটির প্রথম সভা শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন তিনি।

শাজাহান খান বলেন, সড়ক পরিবহনের নতুন আইনে চালক অপরাধ করলে যেন জামিন পায়, সরকারের কাছে এটা আমাদের দাবি। এই দাবি মানা না মানা সরকারের ব্যাপার। সড়ক দুর্ঘটনায় জামিন না পেয়ে দীর্ঘদিন গাড়ি চালাতে না পারলে চালকের ঘাটতি দেখা দেবে।

তিনি বলেন , ‘বছরে সারাদেশে ৩-৪ হাজার দুর্ঘটনা হয়, তাহলে ৩-৪ হাজার চালকের ঘাটতি পড়ে যাচ্ছে। আমরা এখনও কিন্তু ৩-৪ হাজার চালক প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ দিয়ে তৈরি করতে পারছি না। আমাদের সেই ক্যাপাসিটি নেই। এই ঘাটতি পূরণে সড়ক দুর্ঘটনায় গাড়িচালকদের বিচারে শাস্তি যা হওয়ার হবে। কিন্তু আইনে জামিনের ব্যবস্থা রাখার দাবি জানানো হয়েছে।

পরিবহন ধর্মঘট নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে  শাজাহান খান বলেন, আমরা কেউ ধর্মঘট ডাকিনি। যেটা মন্ত্রী মহোদয়ও প্রমাণ পেয়েছেন। আপনারা যেটা বলেছেন ফাঁসি হবে, এই হবে, সেই হবে- এ সব অপপ্রচারের কারণে শ্রমিকরা ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে এই অচলাবস্থা করেছে।

‘অনেক গাড়ির ফিটনেস না থাকার কারণে সেই গাড়িগুলো চালাতে পারছে না ওই আইনের কারণে। সেজন্য রাস্তায় গাড়ির সংখ্যা কম। এই বাস্তবতাটা আপনারা লেখেন না, লেখেন স্বাভাবিক হয়নি। আমি মনে করি সবই স্বাভাবিক চলছে।’ যোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘বাস্তবতাটা হলো এই, লাইসেন্সের কথা মন্ত্রী বলছেন অনেক ঘাটতি আছে, লাইসেন্স দিতে পারছে না বিআরটিএ। ভুয়া ও ফেক লাইসেন্স নিয়ে যদি কেউ গাড়ি চালায়, তার তো জেল-জরিমানা হবে। সে স্বাভাবিকভাবে গাড়ি চালাতে পারছে না।’

LEAVE A REPLY